নদী- জলাভূমি- পরিবেশ রক্ষায় জাগছে মানুষ

মানুষ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গের উত্তরবঙ্গে নদী জলাভূমি ও পরিবেশ রক্ষার দুটি গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচি হয়ে গেল। প্রথমটি শিলিগুড়ি মহিলা মহাবিদ্যালয়ের ভূগোল বিভাগের আয়োজনে “নদী পরিবেশ ও মানুষ” বিষয়ক কর্মশালা। যেটা হল সাহু নদীর ধারে বৈকুন্ঠপুর ফরেস্ট ডিভিশনের ফারাবারি নেপালি বস্তিতে।

আরেকটি শিলিগুড়ি মহকুমা পরিষদ সভাকক্ষে প্রথম উত্তরবঙ্গ নদী ও জলাভূমি বাঁচাও কনভেনশনে। যেখানে উত্তরবঙ্গের প্রতিটি জেলার নদী ও পরিবেশ কর্মীরা উপস্থিত হয়েছিলেন।

শিলিগুড়ি মহিলা মহাবিদ্যালয়ের ভূগোল বিভাগের আয়োজনে “পরিবেশ নদী ও মানুষ” বিষয়ক কর্মশালায় অংশ নিয়েছিল প্রায় আটটি কলেজের কলেজ- বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া, গবেষক, অধ্যাপক- অধ্যাপিকারা। বিশ্ব ও স্থানীয় পরিবেশের সমস্যা, পরিবেশের উপাদান হিসাবে নদী ও তা রক্ষার গুরুত্ব নিয়ে রাজ্যস্তরীয় কর্মশালায় আমি ছাড়াও বক্তব্য রাখেন উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. দীপক মন্ডল। এছাড়াও উল্লেখযোগ্য বক্তা হিসাবে ছিলেন প্রদীপ কর চৌধুরী, শ্যামাপ্রসাদ চাকলাদার, অজয় ট্যান্ডন, স্বাতী ব্যানার্জী প্রমুখ। উদোক্তাদের পক্ষে ড. প্রবীর কুমার কুন্ডু বলেন, নদী ও পরিবেশ সচেতনতায় উদ্ধুব্ধ করতেই এই আয়োজন।

ছবিতে- শিলিগুড়ি মহকুমা পরিষদ সভাকক্ষে পরিবেশ প্রেমী, গবেষক, পড়ুয়ারা ছবি : রিভার বাংলা

পরদিন রাজ্য নদী বাঁচাও কমিটির আহ্বানে উত্তরবঙ্গের প্রথম নদী ও জলাভূমি কনভেনশনে উপস্থিত ছিলেন সাতটি জেলার নদী ও পরিবেশ কর্মীরা। এতে উঠে আসে মহানন্দা, কুলিক, শ্রীমতি, আত্রেয়ী, পুনর্ভবা, টাঙ্গন, তপন দিঘি, লিস, ঘিস, করলা, তিস্তা, কালজানি,আমতলি, তোর্ষা সমস্ত নদী নিয়ে সমস্যার বিষয়গুলি। নদী দূষণ, নদী দখল, নদী ভাঙ্গন ইত্যাদি নিয়ে আলোচনা হয়। বিশেষ ভাবে উঠে আসে নদীর বুকে আবর্জনা- দূষণ নিয়ে,  একইসাথে জলাভূমির মধ্যে বিশেষ ভাবে উঠে আসে তপন দিঘির সংস্কারের কথা। একে একে বক্তব্য রাখেন সবুজ মঞ্চের সম্পাদক নব দত্ত, শিলিগুড়ি পরিবেশ বাঁচাও মঞ্চের পক্ষে অনিমেষ বসু, পার্থ চৌধুরী; বিভিন্ন জেলা থেকে অরুনাংশু শর্মা, সাকিব খান, সন্তোষ তিওয়ারি, রথীন দেব, আরোপি রায়, নাফসার আলি, রাজা রাউত, তনুশ্রী প্রামাণিক, অভিজিত মালাকার, সজল ঘোষ প্রমুখ।

এছাড়াও উল্লেখযোগ্য বক্তব্য রাখেন বিশিষ্টজনেরা- প্রদীপ চ্যাটার্জী, গৌরি শংকর ভট্টাচার্য, শশাঙ্ক দেব, বিবর্তন ভট্টাচার্য, অমল দত্ত প্রমুখ। কলেজ পড়ুয়া দের অংশগ্রহণও ছিল উল্লেখযোগ্য। তাদের বক্তব্য থেকেও উঠে আসে নদী ও পরিবেশ বাঁচানোর কথা। নদী ও দিঘি নিয়ে অনুভবি কবিতা শোনান কবি মনোনীতা চক্রবর্তী এবং নরেশ দাস। রাজ্য নদী বাঁচাও কমিটির কনভেনর হিসাবে বলতে পারি নদী জলাভূমি ও পরিবেশ রক্ষায় মানুষ জাগছে। এটাই আশার কথা। আগামীতে অনেক কাজ রয়েছে। আমরা নদী জলাভূমি পরিবেশকে মানুষের অংশগ্রহণের মাধ্যমে পুনরুজ্জীবিত করবোই।

আরো পড়তে পারেন…

জলপুরুষ রাজেন্দ্র সিং জি কে যেভাবে আমি চিনি

‘নদীর কাছে এসো’র ঢেউ ছড়িয়ে পড়ছে অন্যত্র

সংশ্লিষ্ট বিষয়